বিয়ের আগে অবশ্যই যেসব মেডিকেল পরীক্ষা করানো উচিত

বিয়ে শুধু একটি সামাজিক আচারই নয় বরং একে-অপরের জীবনসঙ্গী হওয়ার বন্ধন। যে মানুষটির সঙ্গে সারাজীবন কাটাবেন তার মনের পাশাপাশি তার শারীরিক বিষয়গুলোও জানা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তা না হলে সম’স্যায় পরতে পারে আপনাদের ভবিষ্যত। তাই বিয়ের আগে অবশ্যই কিছু মেডিকেল পরীক্ষা করানো উচিত।

১. র’ক্ত পরীক্ষা: র’ক্তবাহিত নানারকম রোগ হয়। যেমন- হিমোফিলিয়া, থ্যালাসেমিয়া ইত্যাদি। যার প্রভাব পরতে পারে আপনাদের ভবিষ্যত প্রজন্মের উপর। তাই আগেই জেনে নিন।

২. জেনে’টিক পরীক্ষা:  জেনে’টিক ডি’সঅ’র্ডার কিন্তু এক প্রজন্ম থেকে অন্য প্রজন্মে ছড়ায়। তাই বিয়ের আগে জেনে’টিক টেস্ট করা খুবই জ’রু’রী। আর পারলে বিয়ের আগে দুই পরিবারেরই মেডিক্যাল হি’স্ট্রি জেনে নিন।

৩. HIV পরীক্ষা: বিয়ের আগে HIV বা অন্য কোনরকম সে’ক্সুয়া’লি ট্রা’ন্সমিটে’ড ডি’সিসে’জ (STD), যেমন গনো’রিয়া, সি’ফি’লিস, ওয়া’র্টস, ব্যা’কটেরি’য়াল ভ্যা’জাইনো’সিস আছে কিনা জানার জন্য HIV টেস্ট করানো খুবই প্রয়োজনীয়।

৪. ফা’র্টিলি’টি পরীক্ষা: যতই চিকিৎসা পদ্ধতি আধুনিক হোক না কেন, স্বীকার করতেই হবে ব’ন্ধ্যা’ত্ব সম’স্যা কিন্তু বেড়েই চলেছে। তাই বিয়ের আগে দুজনই করান ফার্টি’লিটি টেস্ট। পুরুষের ফার্টি’লিটি চেক করার জন্য সিমেন টেস্ট আর মেয়েদের জন্য ওভি’উলেশন টে’স্ট করানো হয়। আর জন’নতন্ত্রে কোনরকম জেনে’টিক অ্যাব’নর্মা’লিটি আছে কিনা তা দেখার জন্য পেলভিক আল্ট্রা’সা’উন্ড পরীক্ষা করানো দরকার। তাছাড়াও প্রো’ল্যাক্টি’ন, FSH, LH, টেস্টো’স্টের’ন, ইস্ট্রো’জেন, প্রোজে’স্টেরন ইত্যাদি হরমো’নের পরীক্ষা করতে ভুলবেন না।